পাইকারি ব্যবসা, বর্তমানে বাংলাদেশে অনেক মানুষ আছে যারা লাখ লাখ টাকা হাতে নিয়ে গুড়ে বেরাচ্ছেন। কোন পাইকারি ব্যবসা করলে ভালো হবে। কোন ব্যবসা করলে লাভ বেশি হবে এই চিন্তা ভাবনা করে এক পা এগিয়ে দু পা পিছিয়ে যাচ্ছে। আজকে আমি কম পুজিতে বেশি লাভজনক ৫ টি পাইকারি ব্যবসার আইডিয়া দিব।

পাইকারি ব্যবসা কি?

What is wholesale business?

পাইকারি ব্যবসা হলো উৎপানকারী বা আমদানি কারকের কাছ থেকে অধিক পরিমানের পণ্য ক্রয় করে তা খুচরা বাজারে পাইকারি বিক্রয় করাকে পাইকারি ব্যবসা বলা হয়।

ব্রাশের পাইকারি ব্যবসা

Wholesale of brushes

মানুষের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের মধ্যে অন্যতম হলো ব্রাশ। খাবারের মতো চাহিদা রয়েছে ব্রাশের। আগের কাল মানুষে এতো বেশি ব্রাশ ব্যবহার করত না। তাই দিন দিন ব্রাশের চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে। আপনার কর্মসংস্থান হিসাবে ব্রাশের পাইকারি ব্যবসা বেছে নিতে পারেন।
ব্রাশের পাইকারি ব্যবসা করতে বেশি টাকা পুজি লাগে না। ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকা পুজি হলেই এই ব্যবসা করতে পারবেন।

মশার কয়েলের পাইকারি ব্যবসা

Wholesale trade of mosquito coils

মশার কয়েল বর্তমানে মানুষের নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মধ্যে কয়েল হচ্ছে অন্যতম। বর্তমানে কয়েলের অনেক চাহিদা রয়েছে। বর্তমানে দিন দিন মানুষ অলস হয়ে পরেছে। সে জন্য কয়েলের অনেক চাহিদা রয়েছে। কয়েলের পাইকারি ব্যবসা করতে বেশি পুজি লাগে না। ১০ হাজার থেকে ২০ হাজার টাকা পুজি নিয়ে এই ব্যবসা শুরু করতে পারেন। কয়েলেত পাইকারি ব্যবসা করে মাসে ৬০ হাজার টাকা ইনকাম কর‍তে পারবেন।

কাচাঁমালের পাইকারি ব্যবসা

Wholesale trade of raw materials

মানুষের নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যের মধ্যে অন্যতম খাবার হলো কাচাঁমাল। কাচাঁমালের ব্যবসা হলো লাভজনক একটি ব্যবসা।অল্প পুজিতে লাভজনক ব্যবসা হলো কাচাঁমালের ব্যবসা। কাচাঁমালের পাইকারি ব্যবসা করতে বেশি টাকা পুজি লাগে না। ৫০ হাজার টাকা পুজি নিয়ে এই ব্যবসা শুরু করতে পারেন। ব্যবসা হলো হালাল রিজিক উপার্জন করার রাস্তা। তাই আপনার কর্মসংস্থান হিসাবে এই ব্যবসা বেছে নিতে পারেন। এখন কথা হলে কাচামাল কোথায় থেকে সংগ্রহ করবেন সেটাওত আপনাকে জানতে হবে। কাচামালের পাইকারি ব্যবসা করতে হলে যাত্রাবাড়ী বা ঢাকা কাওরানবাজার থেকে আপনাকে কাচামাল সংগ্রহ করতে হবে।

কাপড়ের পাইকারি ব্যবসা

Wholesale of clothes

See also  মুদি মালের পাইকারি ব্যবসা! ২ লাখ টাকা পুজি নিয়ে মাসে দুই লাখ টাকা ইনকাম করুন
ব্যবসা কে না করতে চায় সবাই ব্যবসা করতে ইচ্ছুক। কে কোন ব্যবসা করব কি ব্যবসা করব সারা দিন এই চিন্তা ভাবনা। এই চন্তা ভাবনা না অল্প অল্প পুজিতে লাভজনক ব্যবসা করুন। বর্তমানে সারা বিশ্ব কাপড়ের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে।  এবং আজীবন চাহিদা থাকবে। আপনারা চাইলে কাপড়ের ব্যবসা করতে পারেন। কারণ কাপড়ের ব্যবসায় ব্যাপক লাভবান হওয়া যায়। অল্প পুজিতে লাভবান ব্যবসা থাকলে একমাত্র কাপড়ের ব্যবসাই আছে। যদি অল্প সময়ে সাফল্য অর্জন করতে চান তা হলে ব্যবসা করুন। তাছাড়া কাপড়ের ব্যবসা করতে হলে আপনাকে আগে কাপড় চিনতে হবে। কাপড়ের পাইকারি ব্যবসা করতে হলে খুচরা পাইকারদের সাথে চিনাপরিচয় থাকতে হবে।

চাউলের পাইকারি ব্যবসা

Wholesale business of rice

চাউল হলো মানুষের নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যের মধ্যে অন্যতম। তাছাড়া বাংলাদেশের মানুষের প্রধান খাদ্য হলো ভাত। বাংলাদেশ প্রতিটি মানুষ ভাতের উপর নির্ভরশীল। এবং আজীবন বাংলাদেশ মানুষের প্রধান খাদ্য হিসাবে থাকবে। তাই আপনার কর্মসংস্থান হিসাবে চাউলের পাইকারি ব্যবসা বেছেনিতে পারেন। চাউলের ব্যবসায় কোন লোকসান নাই। কারণ অল্প পুজিতে লাভজনক ব্যবসা হলো চাউলের ব্যবসা। চাউলের ব্যবসা করতে আপনার পুজি লাগতে পারে সর্বনিম্ন ২ লাখ টাকা। তার জন্য আপনার বাজারের মেইন গলিতে দোকান থাকতে হবে এবং সেখানে মানুষ সবসময় চলাচল করে।