মেয়েদের রুপের জালে বন্দী হয় লাখ পুরুষের মন। বর্তমানে সারা বিশ্বের মানুষেই সুন্দর্য্যের পুজারী। তবে মেয়েরা একটু বশিই সুন্দর্য্যের পুজারী হয়ে থাকেন। কেননা মেয়েরা সবসময় সাজুগুজু করে থাকতে পছন্দ করেন। মেয়েরা বিউটি পার্লারের নাম শুনলে কোন মেয়ের মন চাংগা হবে না এমন একটা মেয়ে পাওয়া অসম্ভব। মেয়েরা পারলে দিন রাত ২৪ ঘন্টা সেজে থাকতে চায়। বর্তমানে বিউটি পার্লার এসে মেয়েদের নিত্য নতুন নতুন ফ্যাশন হয়ে উঠেছে। বর্তমানে সারা বিশ্বে রুপচর্চার বিষয়টি মানুষের মন কেরে নিয়েছে। আর রুপজগতের ভেলায় সবাই একটু হলেও নিজেকে ভাসিয়ে রাখতে পছন্দ করেন। সময়ের সাথে সাথে সাজঘরেরও পরির্বতন হয়েছে। বর্তমানে দেখা যায় ঘরে বসেও রুপচর্চা করা যায় কিন্তু পার্লার নিয়ে এসেছে নতুন নতুন সাজ যার কারণে মেয়েরা ঘরে না সেজে পার্লারে ভির জমিয়ে থাকেন। দেখা যায় যে কোন অনুষ্ঠান হলেই মেয়েরা পার্লার ছাড়া সাজেন না।পার্লার ছাড়া মেয়েরা যেন কোন কিছু চোখে দেখেন না। সে জন্য আজকাল পার্লারের এতো চাহিদা রয়েছে। তাই আজকে আমি পার্লারের ব্যবসা নিয়ে আলোচনা করব। আপনিও ইচ্ছা করলে এই পার্লারের ব্যবসা শুরু করতে পারেন। কারণ এখন সব জায়গায় পার্লারের লাভজনক ব্যবসা জমে উঠেছে। তাই পার্লারের যাবতীয় বিষয় আজ আপনাদের সামনে তুলে ধরা হলো।

বিউটি পার্লারের স্থান নির্বাচন

পার্লারের জন্য শহর কিংবা আবাসিক এলেকায় বা যোগাযোগের ব্যবস্তা ভালো আছে এমন স্থানে বিউটি পার্লারের ব্যবসাটি শুরু করা যায়। যেমন মেয়েদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এর আশে পাশের এলেকায় বিউটি পার্লার স্থাপন  ভালো হয়। পার্লার ব্যবসা করে অনেক লাভবান হওয়া যায়। যাতে করে আপনার পার্লারের ব্যবসায় কোন ক্ষতি না হয় এরকম স্থান ভেছে নিতে হবে যেখানে শব্দ দুষণ না হয়।

See also  মশার কয়েলের পাইকারি ব্যবসা! ৫ হাজার টাকা পুজিতে মাসে ইনকাম করুন ৩০ হাজার টাকা

বিউটি পার্লারের মুলধন

বিউটি পার্লারের ব্যবসা করতে হলে অল্প পুজিই যথেষ্ঠ।  অল্প পুজিতেই লাভের পরিমান ও বেশি। এই পার্লারের ব্যবসা শুরু করতে আপনার আনমানিক পঞ্চাশ হাজার  টাকা থেকে আট লাখ টাকা পর্যন্ত পুজি বিনিয়োগ করতে পারেন আপনার বিউটি পার্লারে। বিউটি পার্লারটি যত ডেকরশন সুন্দর হবে কাস্টমারও তত বেশি হবে।

বিউটি পার্লারের সরঞ্জাম

বিউটি পার্লারের ব্যবসা শুরু করতে হলে যা যা প্রয়োজন যেমনঃ চেয়ার,আয়না,হেয়ার স্পা মেশিন,হেয়ার রিকভারি মেশিন, ফেসয়াল মেশিন, হেয়ার হিটার ইত্যাদি আরো নানারজমের জিনিসপত্র লাগতে পারে।

বিউটি পার্লারে ডেকরেশন

আপনি আপনার পার্লারের জন্য যতো কিছুই করেন না কেন যতো দামি চেয়ার টেবিল কসমেটিক ইত্যাদি থাকলেও কিছু লাভ হবে না।যদি আপনার পার্লারের ডেকরেশন ভালো না হয়। বিউটি পার্লারে ডেকরেশন এমন হতে হবে যাতে করে কাস্টমার তাকলেগে থাকেন।

পার্লারের প্রশিক্ষণ

পার্লারের জন্য আসলে এটা একটা চিন্তার বিষয় যে বিউটি পার্লারের প্রশিক্ষণ কোথায় থেকে নিবেন বা পার্লারের কাজ কোথায় শিখবেন। বর্তমানে অনেক বউটিশিয়ানরা আছে যে পার্লারের প্রশিক্ষন দিয়ে থাকেন। আপনিও ইচ্ছা করলে সেই খান থেকে প্রশিক্ষণ নিতে পারেন বা আপনার চিনাপরিচিত কোন পার্লার থাকলে সেখান থেকে কাজ শিখে নিতে পারেন। আর যদি বিউটিশিয়ান থেকে থেকে পেশিক্ষণ নিতে চান তাহলে প্রায় আপনার ২০০০ থেকে ৫০০০ টাকা লাগতে পারে।

পার্লারের কসমেটিকস

বিউটি পার্লারের ব্যবসা করতে হলে বিভিন্ন ধরনের কসমেটিকস এর প্রয়োজন  হয়ে থাকে। এই সব কসমেটিকস পাবেন আপনার শহর কিং বা ঢাকা চকবাজার থেকে। আপনার পার্লারের জন্য ভালো উন্নত মানের কসমেটিকস ক্রয় করতে হবে। বিদেশি কসমেটিক আজকাল মেয়েরা সবথেকে বেশি পছন্দ করে থাকেন। কসমেটিকস ক্রয় করতে আপনার খরচ হবে ১০ হাজার থেকে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত। ভালো মানের কসমেটিকস ক্রয় করলে ভালো সাজানো হবে। তাছারা কাস্টমার ও দিন দিন বিদ্ধি পাবে এবং সুনাম ও হবে আপনার পার্লারের ।

বিউটি পার্লার পরিচালনা

বিউটি পার্লার পরিচালনা করতে কোন অতিরিক্ত লোকের প্রয়োজন হয় না। যদি আপনি মনে করেন যে আপনার পার্লাররের জন্য অতিকিক্ত লোকের প্রয়োজন তাহলে সে ক্ষত্রে আপনি অতিরিক্ত লোক নিতে পারেন। আপনি বা আপনার পরিবারের সকলে মিলে মিসে এই পার্লার পরিচালনা করতে পারবেন।। ধন্যবাদ।।