বাংলাদেশে বর্তমানে প্রতিটি গ্রামে গ্রামে দেশি মুরগী পালন করে থাকেন। বিদেশি মুরগীর চাইতে দেশি মুরগীর ডিম এবং মাংসের দাম অনেক বেশি। তাছারা দেশি মুরগীর চাহিদা অনেক বেশি রয়েছে। কারণ দেখা যায় যে দেশি মুরগীর ডিম এবং মাংসের মধ্যে অনেক ভিটামিন রয়েছে। আর এই দেশি মরগী পালন করলে বেশি পরিশ্রম করতে হয় না। তাছারা অল্প টাকায় অধিক লাভবান হওয়া যায়। তাছারা গ্রামের চাইতে শহরের বিতরে এইদেশি মুরগীর চাহিদা অনেক বেশি। বর্তমানে বাংলাদেশে বেকার মানুষ অনেক রয়েছে। তারা বেকার না থেকে অল্প টাকা পুজি নিয়ে এই দেশি মুরগীর খামারের ব্যবসা করতে পারেন।  দেশি মুরগীর খামারে কোন লোকসান নাই। এই ব্যবসা করলে অধিক লাভবান হতে পারবেন।

দেশি মুরগী পালন করতে আপনার কি কি প্রয়োজন তা নিম্নে আলোচনা করা হলোঃ

স্থান নির্বাচন

প্রথমে আপনাকে দেখতে হবে কোন জায়গার মুরগী পালন করলে ভালো হবে। সেই রকম জায়গা বা স্থান নির্বাচন করতে হবে। যাতে করে বষা কালে পানি কোন ক্ষতি না কতে পারে। সেই দিকে আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে। তাছারা আপনি ইচ্ছা করলে বাড়ীর ছাদের ওপরেও দেশি মরগী পালন করতে পারবেন।

মুরগীর খামার ঘর

১০০ টি দেশি মুরগী পালনের জন্য আপনাকে ২০ ফুট লম্বা ৫ ফুট চওরা এবং ২ ফুট উচু করে আপনাকে একটি খামার তৈরি করতে হবে। খামারটা হতে হবে উত্তর দক্ষিণ দিকে যাতে করে খুব সহজে আলো বাতস প্রবেশ করতে পারে। খামারের বিতরে ধানের তুষ বা কাঠের কুরা বিচানার মতো করে দিতে হবে।

মূলধন

একটি খামার এবং মুরগীর জন্য আপনাকে ২০ হাজার টাকা পুজি নিলে যতেস্ট। তাছারা আপনি ইচ্ছা করলে আরো বেশি পুজি নিয়ে এই ব্যবসা করতে পারেন। সেটা আপনার ইচ্ছা। আপনি আবার কম টাকা পুজি নিও এই ব্যবসা করতে পারেন।

See also  বর্তমানে কয়েকটি লাভজনক ব্যবসার আইডিয়া কী [ 2023 সালের জন্য লাভজনক ব্যবসার আইডিয়া ]

খামারের জন্য বাচ্চা

আপনার খামারের জন্য অবশ্যই ভালো জাতের দেশি মুরগীর বাচ্চা ক্রয় করতে হবে। যদি একদিনের বাচ্চা ক্রয় করে আনেন তাহলে আপনাকে আরো ৭ দিন গরমের তাপমাত্রায়  রাখতে হবে। যাতে করে বাচ্চা গুলো অসুস্থ বা মারা না যায়। আপনি যে কোম্পানি থেকে বাচ্চা আনবেন যদি টিকা দেওয়া থাকে তাহলে আপনাকে টিকা দিতে হবে না। আর যদি টিকা না দেওয়া থাকে তাহলে অবশ্যই আপনাকে টিকা দিতে হবে।

দেশি মুরগীর খাবার

দেশি মুরগী পালন করলে বেশি খাবারের প্রয়োজন হয় না। তাদের খাবার তারা নিজেরাই যোগার করে নিতে পারেন। তারপরেও পুষ্টি কর খাবার দিতে হবে। যাতে করে মুরগীর ওজন বেশি হয়। তাছারা দেশি মুরগীর জন্য খাবার হলো ধান,গম,ভুসি, সরিসা,কাচা ঘাস ইত্যাদি খাবার দিতে হবে।

রোগ জীবাণু মুক্ত

মুরগী পালনের জন্য অবশ্যই রোগ জীবাণুর কথা আপনাকে মাথায় রাখতে হবে। এবং খামারের আশে পাশে পরিষ্কার রাখতে হবে। যাতে করে রোগ জীবাণু মুরগী কে আক্রান্ত না করতে পারে। সময় মতো টিকা দিতে হবে।

মুরগী পালনের লাভ

১০০ দেশি মুরগী পালন করলে মাসে ৩৬ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন। যেমন ১০০ মুরগী পালন করলে আপনাকে যদি ৮০ টা মুরগী ডিম দিলে গড়ে ৮০ ×৩০ =২৪০০ ডিম দিবে পতি মাসে। তাহলে ডিমের দাম আসতাছে ২৪০০×১৫=৩৬০০০ টাকা। তাছারা দুই বছর ডিম দেওয়ার পরে সেই মুরগী গুলাকে ৪০০ টাকা করে বিক্রয় করতে পারবেন। এখানে আপনার আরো ৪০ হাজার টাকা লাভ আসতাছে।