বর্তমানে গ্রাম এলেকার মানুষেরা হাঁসের খামারের ব্যবসা করে অনেক অনেক লাভবান আছে। হাঁস এর খামারের জন্য আপনাকে প্রশিক্ষণ নিতে হবে না। প্রশিক্ষণ ছাড়াই আপনি হাস এর খামারের ব্যবসা করতে পারবেন। প্রশিক্ষণ ছাড়াও আপনার ব্যবসা কোন ক্ষতি হবে না। তাছারা এই ব্যবসা করতে হলে বেশি পুজিও লাগে না। আপনি ইচ্ছা করলে আজিই এই ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

হাসেঁর খামার তৈরী

হাঁস থাকার জন্য এমনভাবে খামার বানাতে হবে যাতে করে খামারে আলো বাতাস পায়। খামারটা জলধারা বা নদীর আশে পাশে তৈরি করলে অনেক ভালো হবে। যাতে করে খামারের হাস গুলা অতি সহজে পানি স্পর্স করতে পারে। খামারটা হতে হবে উত্তর ও দক্ষিণ দিকে। যাতে করে খামারে আলো বাতাস খুব সহজে প্রবেশ করতে পারে। ১০ ফুট চওরা এবং২৫ ফুট লম্বা করে খামার বানাতে হবে। এবং উচুটা হতে হবে ৮ ফিট। তাহলে আপনি খামারে ১৫০ থেকে ২০০টি হাঁস পালতে পারবেন।

হাসেঁর বাচ্চা পালনের পদ্ধতি

খামারের জন্য ভালো জাতের দেশি বাচ্চা এনে আন্তত সাত দিন সেগুলোকে নিয়ন্তিত তাপমাত্রায় রাখতে হবে। যাতে করে বাচ্চা গুলা ভালো ও সুস্থ থাকে । হাঁস গুলো থাকার জন্য খামারের মধ্যে ধানের তুষ বা কাঠের গুড়া দিতে হবে। তাছারা আপনাকে খামারের বিতর বা চারপাশে পরিস্কার রাখতে হবে। যাতে করে খামারার হাঁসের মধ্যে রোগ জিবাণু না ছড়াতে পারে।

খামারের জন্য দেশি হাঁস

হাঁসের জাত বিভিন্ন ধরনের হতে পারে। তবে খামারের জন্য দেশি জাতের হাঁস পালন করলে অনেক ভালো হয়।এই হাঁসের মাংস ও ডিম অনেক চাহিদা রয়েছে। আর এই হাঁসের বেশি খাবারের প্রয়োজন হয় না। তাদের খাবার তারা নিজেরাই সংগ্রহ করে নিতে পারে। তাছারা দেশি হাঁসে আপনাকে বছরে ৩০০ থেকে ৪০০ ডিম দিয়ে থাকেন

See also  চাউলের পাইকারি ব্যবসা! ১ লাখ টাকা পুজি নিয়ে মাসে ইনকাম করুন ৫০ হাজার টাকা

এই দেশি হাঁস পাললে আপনাকে বেশি প্ররিশ্রম করতে হবে না তাদেরকে নদী বা জলধারা ছেড়ে দিলে তাদের খাবার তারা নিজেরাই সংগ্রহ করেনিতে পারেন। তাছারা এই হাঁস গুলা পাঁচ মাস পর থেকেই ডিম দেওয়া শুরু করে থাকেন। টানা  তিন বছর ডিম দিয়ে থাকেন।

হাসেঁর খাবার কি কি?

সাধারণত গ্রাম এলেকার মানুষেরা হাসঁ পালন করলে খাবার বেশি লাগে না। তবে যা লাগে তা হলো, ধানের কুড়া, ভাত, শামক, ধান, গম, ভূসি, চাল ইত্যাদি সাধারণত হাসেঁর খাবার।

হাসঁ পালনের প্রশিক্ষণ

হাসঁ পালনের জন্য কোন প্রশিক্ষণ এর প্রয়োজন হবে না। প্রশিক্ষণ ছাড়া আপনি ইচ্ছা করলে হাসঁ পালন করতে পারবেন ।

হাসেঁর খামার পরিচালনা

এই খামার পরিচালনা করতে কোন অতিরিক্ত লোকের প্রয়োজন হয় না। আপনার পরিবার মিলে-মিশে এই রকম খামার পরিচালনা করতে পারেন।

হাসেঁর খামারের লাভ

হাঁস পালনের লাভ বছরে গড়ে ২০০ টি হাঁসের মধ্যে ১৮০ টি হাঁস ডিম দিলে ১ বছরে ডিম পাওয়া যায় ৩১হাজার  যার দাম প্রায় ৩,লাখ ৪০ হাজার টাকা। তিন বছরে আপনার গড়ে প্রায় ১০ লাখ ২০হাজার টাকা আস্তাছে। তাছারা ডিম পারা শেষ হলে পুরান হাস গুলাকে বাজারা বিক্রয় করে দিতে পারেন। প্রতিটি হাঁস গড়ে ৩৫০ টাকা করে বিক্রয় করতে পারেন। তাতে করে দেখা যায় আপনার আরো প্রায় ৭০ হাজার টাকার মতো আসতে পারে।

পরিশেসে একটা কথা কবলতে চাই ব্যবসায়ের সাথে কোন জিনিসের তুলনা করবেন না।। ধন্যবাদ।।